kalighater_rail

কালীঘাটের রেল

জানেন, একসময় ম্যাকলয়েড সাহেবের রেলগাড়ি চড়ে কালীঘাট মন্দিরে পুজো দিতে যাওয়া যেত কলকাতায়? সেকি, অবাক হলেন নাকি। ভাবছেন আজ কোথায় গেল সেই রেল? আর কোথায় উধাও হয়ে গেল আস্ত রেলের লাইন খানা? দাঁড়ান বলি তবে। শহরে আসবার পরে শুধু কোম্পানি বাহাদুরই নয়। ব্যক্তিগত উদ্যোগেও এ শহরকে ঢেলে সাজাতে চেয়েছে সাহেবরা। আরও পড়ুন…

dinajpure dashai

দিনাজপুরে দাঁশাই / দাঁসায় (দুঃখের দিন)

এখন সম্পদ বলতে যেমন টাকা-পয়সা গাড়ি-বাড়ি বোঝায়, অতীতে সম্পদ বলতে বোঝাতো গরু, ভেড়া, মহিষ ইত্যাদি। আদিবাসীদের “হুদুড়-দুর্গা” নামে এক সৎ, দয়াবান, পরাক্রমশালী মহিষাধিপতি ছিলেন। আদিবাসীদের প্রধান দেবতা “মারাংবুরুর” কাছ থেকে হুদুড় দুর্গা বর পেয়ে অজেয় শক্তির অধিকারি হয়েছিলেন। হিমালয় পর্বত থেকে শুরু করে গাঙ্গেয় সমভূমি পর্যন্ত সুবিস্তীর্ণ অঞ্চল ছিল তাঁর আরও পড়ুন…

swarup 14th sep

১৪ ই সেপ্টেম্বর, ১৯৪২ – জাতীয় পতাকা উত্তোলন – বালুরঘাট এর একটি ঐতিহাসিক দিন

একদিনের জন‍্য হলেও বালুরঘাটে ব্রিটিশ পতাকা নামিয়ে ভারতীয় তেরঙ্গা উত্তলন হয়েছিল। ১৯৪২ সালের ১৪ ই সেপ্টেম্বর ঠিক আজকের দিনে একদিনের জন‍্য হলেও আমাদের বালুরঘাট স্বাধীন হয়েছিল। ১৯৪২ সাল ভারতছাড়ো আন্দোলন এই প্রস্তাব গৃহিত হলো। ৯ আগষ্ট “ইংরেজ তুমি ভারতছাড়ো”এই বানী দেশের আকাশে বাতাসে ধ্বনিত হতে লাগল। মহাত্মা গান্ধীর আবেদনে সারাদেশ আরও পড়ুন…

moukhik_itihas-last

মৌখিক ইতিহাস ও পুরাকথায় দক্ষিণ দিনাজপুর (শেষ পর্ব)

রঘুনাথের মেলাঃ রঘুনাথের মেলা বাংলাদেশের রাজশাহী জেলার ‘মানদা’তে অনুষ্ঠিত হয়। পরে জনৈক সেবাইত সেখান থেকে মাটি নিয়ে এসে দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাট এর উত্তর চকভবানীতে পুজো শুরু করেন। বর্তমানে মন্দিরটি যেখানে অবস্থিত সেটি রঘুনাথপুর ও ডাকরা মৌজার অন্তর্গত। বছরে একবার রামনবমী উপলক্ষে মন্দিরে বিশেষ পুজোর আয়োজন করা হয়। ভোরবেলা থেকে ভক্তরা আরও পড়ুন…

aghor8

বালুরঘাটে বৌদ্ধ-তন্ত্রের দেবী তারার উপাসনা ও এক মহান অঘোর-বৌদ্ধ সাধক (শেষ পর্ব ও একটি তথ্যচিত্র)

সম্পর্ক যে ছিল সেটা একটি বিস্তারিত প্রবব্ধে আমি বছর দুইয়েক আগে লিখেছি । নেতাজীর সাথে দিনাজপুর বা বালুরঘাটের সম্পর্ক। বিগত কয়েক কিস্তিতে যে মহাসাধকের কথা লিখেছি তাঁর সাথেও নেতাজীর দেখা ও বাক্যালাপ হয়েছিল। তিনি ও তারাক্ষ্যাপা; এই দুজনের সাথেই নেতাজীর আলাপ ছিল। পশুপতিনাথ মন্দিরের সাথেসাথে তিনি আরেক জায়গায় যেতেন যার আরও পড়ুন…

dinajpur-lojjagouri-lojjaporob

অম্বুবাচীতে প্রাচীন দিনাজপুরে কৃষিভিত্তিক লৌকিক দেবী “লজ্জাগৌরী” ও “লজ্জাপরব”

যাদৃশং তূপ্যতে বীজং ক্ষেত্রে কালোপপাদিতে।তাদৃগ্ রোহতি তত্তস্মিন্ বীজং স্বৈর্ব্যঞ্জিতং গুণৈঃ’।। (মনুসংহিতা-৯/৩৬) বপনের উপযুক্ত বর্ষাকাল প্রভৃতি সময়ে উত্তমরূপে কর্ষণ-সমীকরণ প্রভৃতি পদ্ধতির দ্বারা সংস্কৃত ক্ষেত্রে যেরকম বীজ বপন করা হয়, সেই প্রকার ক্ষেত্রে সেই বীজ বর্ণ-অবয়বসন্নিবেশ রস-বীর্য প্রভৃতি নিজগুণের দ্বারা বিশিষ্ট হয়ে শস্যরূপে উৎপন্ন হয় (মনুসংহিতা-৯/৩৬) প্রাচীন মাতৃতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থা ও লোকজীবন অতিবাহিত আরও পড়ুন…

moukhik_itihas

মৌখিক ইতিহাস ও পুরাকথায় দক্ষিণ দিনাজপুর (পর্ব – ৬)

আজ ষষ্ঠ পর্বের মৌখিক ইতিহাস ও পুরাকথায় জেনে নেবো তপন থানার মন্দির বাসিনী দেবী ও পোড়াগাছির মন্দির এবং হরিরামপুর থানার বৈরাট্টা গ্রামে অবস্থিত আলতা দীঘি সম্পর্কে। মন্দির বাসিনী দেবীঃ  তপন থানার ভিকাহারে রয়েছে প্রায় তিনশো বছরেরও বেশি প্রাচীন মন্দির বাসিনী দেবীর মন্দির। জনশ্রুতি এক তান্ত্রিক এখানে তন্ত্র চর্চা করতেন। তিনি আরও পড়ুন…

moukhik_itihas

মৌখিক ইতিহাস ও পুরাকথায় দক্ষিণ দিনাজপুর (পর্ব – ৫)

  আজ পঞ্চম পর্বের মৌখিক ইতিহাস ও পুরাকথায় জেনে নেবো তপন থানার ভায়োরের  মায়ের থান ও দিনাজপুরের জনপ্রিয় লোকদেবী চামুণ্ডা সম্পর্কে। মায়ের থানের গল্পগাথা ও নিম্নবর্গের মানুষদের (Subaltern People) দ্বারা পূজিত চামুণ্ডা কী ভাবে সর্বজনীন গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করল তা দেখে নিই –  মায়ের থানঃ                 তপন থানার ভিকাহারের পশ্চিমে ফকিরপাড়া থেকে একটু আরও পড়ুন…

dinajpurer-hariye-jaoa-nodi-paul-youg

দিনাজপুরের একটি হারিয়ে যাওয়া নদী ও পালযুগ

যদি আমরা আমাদের জেলার আত্রেয়ী বাদে একটি নদীও পুনরুজ্জীবিত করতে পারি, তাহলে বলার অপেক্ষা রাখে না যে; সেটা হবে বিপ্লব। পরিবেশ বা ইতিহাসজ্ঞ নই শুধুমাত্র ভালোবেসে পুরাতত্ত্বের খোঁজে জেলায় ঘুরে বেড়িয়েছি। এইরকম একদিন আমার বাড়ির ৫০০ মিটারের মধ্যে পালযুগের কিছু পোড়ামাটি, স্থাপত্য, ভাঙ্গাচোরা মূর্তির সন্ধান করতে করতে ক্ষেত্র সন্নিহিত নদী আরও পড়ুন…