নীপবীথি ভৌমিক-এর দুইটি কবিতা

নীপবীথি ভৌমিক on

nibpithi_bhowmik_kapalik_ghum

কাপালিক

প্রতিটি মৃত্যুর জন্মের ‌পাশে
আমার নিজস্ব নাম লেখা আছে।
হাতে‌ তুলে নিই মৃত্যু-আতর, সিঁদুর চন্দন …

খুন করি নিজেকেই। নিজের রক্তে
নিজস্ব স্নানে সিক্ত হই।

কাপালিক কাকে বল তুমি ?
নরমুণ্ড, হোম আগুনে যে রক্ত পান করে ?

আমিও তো খুনি। কাপালিক আজ।
মন্ত্র বেজে যায় হৃদয়ের অতলে…
এসো দেবী, খুন হই এবার আমি আমার
নিজস্ব খড়গে ।


ঘুম

সমস্ত শব্দের কাছে বসে থাকে
আমার একান্ত নীরবতা।

শব্দ হয় খুব। যখন মাটি খুঁড়ি আমি।
ভেঙে যায় নীরবতার ঘুম
চোখ মেলে সে, দ্যাখে জীবন কাকে বলে!
আমার আহত শব্দরা হত্যা করে আমায়
মৃত্যুর হাসিতে লিখে রাখা দোতারার দেহে।



নীপবীথি ভৌমিক

সাহিত্যের আবহাওয়া সমৃদ্ধ পরিবেশে জন্ম‌ উত্তর চব্বিশ পরগনার বসিরহাটে। লেখা লেখির অভ্যাস ছোট থেকে। বাবাকে দেখেই অনুপ্রাণিত হওয়া। প্রথম প্রকাশিত লেখা যুগ সাগ্নিক পত্রিকা। লিখে থাকেন মাসিক কৃত্তিবাস, লংজার্নি পত্রিকা এছাড়া ভারত, বাংলাদেশের বিভিন্ন পত্র পত্রিকায়।

0 Comments

মন্তব্য করুন

Avatar placeholder

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।