মনের মুকুল

সুনীল কুমার মণ্ডল on

দু’ কাপ চায়ে হারিয়ে যাবো অন্য কোথা ।
সাগর জলে ডুবিয়ে দেবে বালিয়াড়ি,
ঘোর নিশীথে চাঁদটা এলে বলবো তোকে,
আয়না কাছে হোকনা ওরে ছেঁড়াশাড়ি।।

হা-ভাতের কি চাঁদ ওঠেনা ভাঙ্গা ঘরে!
দেখলে তোকে তখন দেখি চাঁদের জ্যোতি,
থাকনা ঘরে নোংরা কাঁথা মেঝেয় পাতা,
ধনী গরীব মনের রোগে একই গতি।।

নাই থাকনা দামী আতর বিদেশী বাস।
কাপটা নিয়ে বাসনা পাশে এই এখানে,
তোর গন্ধ আমার কাছে তোকে চেনায়,
গন্ধ কবে আটকে রাখে গোপন টানে?

বিজ্ঞাপনী চটকদারী বাবুর ঘরে।
আসল রূপে আসবো আমি হাসবো পাশে,
নাইবা হল নখের কোণে রংবাহারি,
মনটা যেন ঠিক সময়ে মুকুল ধরে।।

নিয়ন আলো কি আর হবে তুই থাকলে।
বেহায়া চাঁদ চালের ফাঁকে দিচ্ছে উঁকি,
দুটোর চেয়ে এক বালিশে হারাবো আজ,
দূরেই কেন আয়না কাছে চন্দ্রমুখী।।



সুনীল কুমার মণ্ডল

১৯৬৬ সালে ১৪ই জুন কেশপুর থানার অর্ন্তগত মহদিচক গ্রামের কৃষক পরিবারে জন্ম।ঘাটাল রবীন্দ্রশতবার্ষিকী মহাবিদ্যালয় থেকে বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে সাম্মানিক সহ স্নাতক। বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে স্নাতকোত্তর। কবিতা ও ছোটগল্প লিখতে ভালো লাগে। বর্তমানে মেদিনীপুর শহরে বসবাস। যাত্রা ও নাট্য শিল্পে অভিনয় করা নেশা। কর্মস্থল- ব্যানার্জী ডাঙ্গা হাইস্কুলে শিক্ষকতা, বর্তমানে দেশপ্রাণ হাইস্কুল। কাব্য-- তিন নম্বর চোখ, এবং বহুরূপী, রোদ্দুরের হাতে খড়ি(যন্ত্রস্থ)। সম্মান-- বিশ্ববঙ্গ বাংলা সাহিত্য একাডেমী কর্তৃক 'কাব্যশ্রী', নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী স্মৃতি পুরস্কার-- 'তিন নম্বর চোখ' কাব্যের জন্য । নজরুল স্মৃতি সাহিত্য সংসদ--- বর্ষসেরা সম্মান। চট্টগ্রাম সাহিত্য পরিষদ--- নান্টু চৌধুরী স্মৃতি সাহিত্য সম্মান।

0 Comments

মন্তব্য করুন

Avatar placeholder

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।