“প্রিয়, ফুল খেলিবার দিন নয় অদ্য, ধ্বংসের মুখোমুখি আমরা”

শুভদীপ আইচ on

সঙ্কট সংখ্যা লইয়া লিখিতে বসিয়া নিতান্তই সঙ্কটে পড়িয়াছি । প্রথমত এই বানান বিভ্রাট ।’ সংকট ‘ না ‘ সঙ্কট ‘ কোনটা লিখিব ইহা লইয়া মনের মধ্যে টানাপোড়েন বিস্তর । এদিকে জানালার বয়স হাটি হাটি পা পা করিতে দুই বৎসর অতিক্রম করিয়া এই তিন এ পা রাখিলো । ” সঙ্কট ” সংখ্যার বিজ্ঞপ্তি যখন প্রকাশ করিলাম তখন গোটা দেশ এক সামগ্রিক সংকটের মুখোমুখি । এন আর সি নামক এক কালা কানুনের কবলে পড়িয়া দেশ তথা রাজ্যের প্রজাগণ আতঙ্কের প্রহর গুনিতেছে । অহরহ দাবানলের মতো ছড়িয়া পড়িতেছে হানাহানি , অবিশ্বাস , মানুষে মানুষে বিদ্বেষ । কেহবা যদি দ্বেষদ্রোহী বলিয়া নিজেকে জাহির করিতে চায় তবে তাহাকে দেশদ্রোহী র আখ্যা দেওয়া হইতেছে । সমাজ বিভক্ত হইতেছে জাতপাতের ভিত্তিতে । এমতাবস্থায় বন্ধু ও শুভানুধ্যায়ী লেখক জয়দীপ চট্টপাধ্যায় এর সহিত আলোচনারত অবস্থায় প্রস্তাব আসিল আগামী সংখ্যার বিষয় রূপে ‘ সঙ্কট ‘ কে নির্বাচন করা যাইতে পারে । আলোচনা হইল জানালার সভ্যবৃন্দের সহিত । ভাবা হইল এমনরূপে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ পাইবে যাহাতে একটা সামগ্রিক সংকট লইয়া সংখ্যা উঠিয়া আসে । আসলে সকল সৃষ্টিই তো উঠিয়া আসে কোনো না কোন সংকটের মধ্য হইতে ।

সময় যত গড়াইল কালক্রমে উত্থাপিত হইল নতুন একটি সংকট । অজানা এক মারণ রোগের প্রকোপে আক্রান্ত হইতে থাকিল সমগ্র বিশ্ব তথা মানব জাতি । এ যেন এক অদ্ভুত রোগ । এই রোগ পশু , পাখি , কীট-পতঙ্গদের কোনরূপেই বিব্রত করিল না । ইহার সমস্ত আক্রোশ যেন মানবজাতির প্রতি । দিবস – রজনী , যুগের পর যুগ মনুষ্য জাতির দ্বারা প্রকৃতি ও সমগ্র জীবকুল এর যে প্রভূত ক্ষতিসাধন হইয়া আসিতেছে এই মারণাস্ত্র যেন তাহারই ন্যায় বিচার করিবার জন্য ধরাধামে অবতীর্ণ হইয়াছে । তবু যতই এইসব নীতিবাগীশের বুলি আওড়াই । শেষমেষ তো নিজেও সেই অভাগা জাতিটিরই প্রতিনিধি । তাই ভয়ে ভয়ে থাকি দেশে-দেশে , পথে-প্রান্তরে ছড়াইয়া থাকা , অনাহার আর দারিদ্র্যক্লিষ্ট পরিবারগুলি , নিজ নিজ আত্মীয় – পরিজন , বন্ধুবান্ধবদের কথা ভাবিয়া । ইতিমধ্যেই বহু বন্ধু ও শুভানুধ্যায়ী উহাদের পাশে দাঁড়াইয়াছেন । মানুষের পাশে আবার দেখা যাইতেছে মানুষের কাঁধ । আশা রাখি সকলে মিলিয়া এই সংকট হইতে মুক্তিলাভ করিব । মানুষ মানুষের সাথে সৌভাতৃত্বের বাতাবরণে আবার নিমজ্জিত হইবে । প্রকৃতি ও পশু পাখির সহিত ও তাহার নৈকট্য বাড়িবে । ভালোবাসায় ভালোবাসায় ভরিয়া উঠিবে আলো ও বাতাস । মানুষ নিকটে আসিলেও প্রকৃত সারস উড়িয়া যাইতে চাহিবে না । আর তখনই তো প্রকৃত স্বর্গ রচিত হইবে ধরাধামে । আপাতত সেই দিনটির অপেক্ষা ।



শুভদীপ আইচ

জন্ম : ১৭ ই ফেব্রুয়ারি , ১৯৮৬ , কলকাতা। নিবাস - দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট শহরে। প্রকাশিত কবিতার বই মেঘ পিওনের চিঠি ( ২০১৭ ), নিঃশ্বাস, প্রেম ও অন্যান্য অনুষঙ্গ ( ২০২০ )।

1 Comment

অরিত্র · মে 16, 2020 at 5:34 পূর্বাহ্ন

এই সঙ্কটকালে সংকট মোচনের পাথেয় হোক আপনাদের এই প্রয়াস!
যে ভাষা ব্যবহার করেছেন সেই প্রেক্ষিতে সৌভ্রাতৃত্ব কথাটাই বোধহয় বেশি যুক্তিযুক্ত।

মন্তব্য করুন

Avatar placeholder

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।