সমন্বয় -এর কবিতা

সমন্বয় on

SAMANWAYER_KOBITA

যদিও

যদিও আমি র-ফলা থেকে য-ফলা হতে পারবো; আর কেনো
আমি রেফ হয়ে বিপ্লবী হতে পারবো না,
এ বিষয়ে এক খাঁচার কাকাতুয়াকে প্রশ্ন করলে,
অপমানিত মানুষের মতন, যে মানুষ জানলার কাঁচের
বাঁপাশে দেয়ালে হেলান দিয়ে বসে থাকে , তাকে নকল
করে , তার মতন করেই, কাকাতুয়া কথা বললো।
সবিনয়ে, কানে আসলে । খুর যেমন ধুলো ফাঁকা করে,
অর্থহীন চকচকে আসাম । আমাকে ফ্রেমে প্রায় অর্ধেক রেখে
সে জানালো : সম্বোধন কারকে দ্বিতীয় বিভক্তি। অতএব-এর
মতন, গোধূলি রঙের শরীর। তার দীর্ঘশ্বাসে আমার সমস্ত
সুযোগ ভরে গেলো।


রেকাবি

ফলের থেকে সকাল
ছিনিয়ে নিলে
আর্ধেক রহস্য
ধরে রাখে
কেস
অন্ধবিন্দু থেকে ফসল
সরিয়ে মেহফিল
পচে যায়
ভগ্নাংশ ও ছুরির
নিতান্ত অস্বস্তি
এসব,
পাতার বিবর্তিত
ভাস্কর্যে
পুরে রাখে
রেফারেন্স

ফলের ভেতর থেকে
শ্বাস নিই
পাশেই
হয়তো টেবিলে করাত
বসছে,
এমন প্রদর্শনীতে কানাগলি
নেই –
ধাপ্পা ও বিসর্গ দূরবীন
থাকে
বয়ামের কিছু
নৈতিক হাওয়া
কোনো দূর
আকারে চরাচর – হয়তো
আমিই
ফলের ভেতর থেকে
শ্বাস নিই
কোনো সাক্ষ্য থাকে,
থাকে না বোধহয়



সমন্বয়

জন্ম - কোচবিহার। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে, বাংলা ভাষা ও সাহিত্য নিয়ে স্নাতক স্তরে পড়ছেন, ফিল্ম স্টাডিজে বিশেষ ঝোঁক ।

0 Comments

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।