রবিন বণিক -এর দু’টি কবিতা

রবিন বণিক on

robin_bonik-guchhokobita

ভ্রম

অনিবার্যতা, ভ্রম হতে পারে
অথবা হতেও পারে অনিবার্যতাই ভ্রম

দু’হাতে কর্তব্য মেখে যারা চলে গেল
অথবা চলেই গেল তারা সন্তানসম্ভবা নয়
নদী রেখে গেল ঘরে শীতের মতো
কারা তারা বার বার অথবা লিখেছে ভুল
মাত্রা আঁকতে ভুলে গেল গাছের

যদি ঝুপ করে খসে পড়ে দিবস ১২
তবে নিঃসন্দেহে বলা যেতে পারে
অনিবার্যতা কোনো ভ্রম হতে পারে না।


উপসর্গ

একটা উপসর্গের ভেতর এতো চলাচল–
একোণ ওকোণ এঘর ওঘর গোটা ঘড়ি জুড়ে
জলহীন নৌকোর মতো। কিছু বলতে গেলেই
নুয়ে পড়ে মুখ টেবিলে চেয়ারে ছাঁকনির ছিদ্রপথে।
অসহায় পায়ার কাছে হাঁটু মুড়ে বসে থাকে ব্যাঙ–
আত্মহত্যার ঠিক আগের মূহুর্তে খুলে দিয়েছিলে
উপসর্গে ছিটিয়ে থাকা নোনা জল–রং

নোনা জল যে একটা বিষয় হয়ে উঠতে পারে–
বিশ্বাস করুন
এখনো বুঝে উঠতে পারিনি সামুদ্রিক বিকেল কোনো
একদিন উপসর্গ হয়ে উঠবে অথবা–সমুদ্রের।



রবিন বণিক

জন্ম ১৯৭২ সালে। উত্তরবঙ্গের জেলা আলিপুরদুয়ারের হ্যামিল্টনগঞ্জ নামক গ্রামে জন্ম। লেখালেখি শুরু ১৯৯৯ সাল থেকে। মাঝে অনেকগুলো বছর লেখা থেকে বিরত ছিলেন। মূলত কবিতাই লেখেন। বিভিন্ন পত্রিকায় লেখালেখি করে। সরকারি চাকরি করেন। প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ ঃঃ শহরে মাছির কোলাহল, প্রকাশক আখরকথা, দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ এক চিলতে গ্রীবায় ঝুলিয়ে রেখেছি কথা, প্রকাশক সাঁঝবাতি। প্রিয় কবি সেভাবে চয়ন করা কঠিন। তিনি ভাবেন কবিতা যন্ত্রনার সন্তান।

0 Comments

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।