হরিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের কবিতা

হরিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় on

harit_bandopadhyay_kobita

মেলার মাঠে

আমরা ভুলে যাব আমাদের দেখা হয়েছিল
কোনো কিছুর জের সঙ্গে করে আনবো না

বাক্যগুলোও উচ্চারণ করবো খুব সামনে এসে
মনে করবো এই প্রথম জানলা দিয়ে পৃথিবী দেখছি

কোনো কথা কেউ কারও গায়ে লাগিয়ে দেব না
দাঁড়াবার জায়গাটুকু ছাড়া চারপাশে আর কিছু নেই

এবার দেখো আমি কি কোনো গাছ অথবা
ছোটোবেলায় জানলা দিয়ে দেখা দূরের কোনো নদী ?

তাহলে এসো
আবার চলতে শুরু করার আগে মেলার মাঠে

দুজনে একচক্কর ঘুরে নিই ।


অভাবের টিমটিমে আলোর ভেজা সন্ধ্যেয়

কোকিলটা আমার দিকে এমনভাবে তাকিয়েছিল
যেন তার কন্ঠস্বর এই বিরাট পৃথিবীর কাছে
পাতার একটা ছোট্ট কুটির
অথচ তার উঠোনটা দুয়ারের সঙ্গে এমনভাবে লেগেছিল
মনে হবে তার জীবনে কোনো বাছবিচার নেই
এমন হাটদরজার বাসিন্দার কাছ থেকেই
নদীর আগামী যাত্রাপথ জেনে নিতে হয়

কোকিলটা এমনভাবে গলা বাড়াচ্ছিল
যেন আর কিছুক্ষণের জন্যে তাকে আমি সহ্য করি
সে আরও একটা গান ধরল
অভাবের টিমটিমে আলোর ভেজা সন্ধ্যেয়
ঘরের একমাত্র জানলাটাকে বসন্ত মনে হচ্ছিল ।


ফেসবুক অ্যাকাউন্ট দিয়ে মন্তব্য করুন


হরিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়

জন্ম ১৯৬৭ সালের ২ জানুয়ারি হুগলী জেলার ধনিয়াখালি গ্রামে। লেখালিখির শুরু খুব ছোটবেলা থেকেই। ছাপার অক্ষরে স্কুল ম্যাগাজিনে চিরাচরিত নিয়ম ভেঙেই প্রথম প্রকাশিত হয় "কেয়া" নামের একটি প্রেমের কবিতা। সাহিত্য নিয়েই পড়াশোনা। পেশায় গৃহশিক্ষক হলেও সাহিত্যই চব্বিশ ঘণ্টার ধ্যানজ্ঞান। মাসিক কৃত্তিবাস, একুশ শতক, ভাষাবন্ধন, প্রমা, কথাসাহিত্য প্রভৃতি পত্র পত্রিকায় লেখা প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশিত গ্রন্থ ৫টি। From the spring of light (পলাশ পালের শিল্পীজীবন), তুমি অনন্ত জলধি (কবিতা), বিমূর্ততার অনন্ত প্রবাহে (কবিতা সংক্রান্ত গদ্য), চার ছক্কায় সচিন (ছড়া), দু'এক পশলা মান্না (ছড়া) ।

0 Comments

মন্তব্য করুন

Avatar placeholder

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।