দেবাশিস সাহা-র দু’টি কবিতা

দেবাশিস সাহা on

debashish_saha_2ti_kobita

ইটভাটা

নরম হাড়ের উপর
মাথা রাখে ইটভাটা

এই ভাবে শক্ত হয় খুলি

পাঁজা পাঁজা শ্রম
আলোর সংগে পাল্লা দিয়ে
নামে আর ওঠে

পছন্দ না হলে
শক্ত খুলি বল ভেবে
পাঠিয়ে দি মাঠের বাইরে

নরম মনের উপর
পা রাখে পিশাচ
লতিয়ে লতিয়ে
ধোঁয়ার সংগে সংগে
বড়ো হতে থাকে ইটভাটা


পিং পিং বল

ব্যধি সরে সরে আসে
দীর্ঘ হতে হতে
কবরে নেমে যায় রাস্তা

ব্যলট নেই বুলেট নেই
এক অশরীরী যুদ্ধ
যাবতীয় আয়োজনকে
পিং পিং বল ভেবে
মেরে যাচ্ছে ছক্কার পর ছক্কা

নানা বর্ণের
দামী রঙের
সামরিক সাজোঁয়া আজ খেলনা
খেলনানগরের নখ দাঁতহীন সম্রাট
শুকনো পাতার মতো গর্জায়
পাশ দিয়ে বয়ে যায় লাশনদী



দেবাশিস সাহা

জন্ম-০১.০১.১৯৭০, শিক্ষা - স্নাতক। পেশা-ব্যঙ্ককর্মী। নেশা- গাছ পোষা।কাব্যগ্রন্থ- ১.মা,আমি তোতন বলছি ২.কুড়িয়ে পাওয়া অক্ষরঘুম ৩.প্রজাপতি রঙের গ্রাম.৪.গাছ পুরাণের দৃশ্যকল.৫.পোষা মৃতদেহ. ৬.রাস্তা ভর্তি চাঁদ. ৭.সার্কাস জীবন. ৮.সম্পর্কের পাতাবাহার. ৯.দেখা শেখার স্কুল. ১০.আলোদের ঈশ্বর ।পুরস্কারঃ রামমোহন লাইব্রেরি থেকে কবিতা র জন্য। উন্মুখ পত্রিকার জীবনানন্দ স্মৃতি পুরস্কার।সম্পাদনাঃ ২০০৪ থেকে "ছাপাখানার গলি" , আলোচনার কাগজ।

0 Comments

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।