২০ শে ফেব্রুয়ারি

ঈশিতা দে সরকার on

হাসপাতাল থেকে মা বাড়ি এলে
দরজায় আসে ঘুম পাড়ানি রোদ;.
বাংলা ভাষা উচ্চারিত হলে
“বারান্দায় লাগে জ্যোতস্নার চন্দন ‘
ভাষা আর মা সুখ দু:খের কথা বলে ;
মেয়ে খোঁজে বাংলা হরফ লেখা শাড়ি।
স্নিগ্ধ স্বরে কথা বলা বাঙালি বিক্রেতা শাড়ি দেখায়;.
হরফ লেখা।
প্রতি হরফে অচেনা আলেখ্য।
বাংলা নয়;.
বাংলার মত দেখতে নয়;.
একের পর এক বিক্রেতা একই গান গায়
করুণার মত দেখতে সন্ধ্যা টাঙিয়েছে নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপন
“বাংলা কোথায়? “
মাথা নীচু মেয়ের চোখে জল;
রাত পোহালেই একুশের অলৌকিক ভোর।



ঈশিতা দে সরকার

কাব্যগ্রন্থ নেই।সম্পাদিত পত্রিকা নেই। ছেঁড়া ব্যাগে কবিতা ও নেই বেশি। কবিতা নিজেই যখন লিখিয়ে নেয়; লেখেন। পছন্দের বইয়ের তালিকা দীর্ঘ। সবকিছুর উর্ধে জীবনানন্দ লালন। জন্ম শিলিগুড়ি। বেড়ে ওঠা রায়গঞ্জ।

0 Comments

মন্তব্য করুন

Avatar placeholder

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।