রোদ্দুরবেলা

রাজর্ষি দে on

বিষন্ন নব্বই জুড়ে
রোদ নিতে নিতে আমরা ক্লান্ত হলাম
কুরুবকের মতন বকবক করতে করতে
আমরা পেরিয়ে যাচ্ছি রাস্তার কলতলা
নেড়া মাঠ আর মেদুর স্টেশন

চায়ের ধোঁয়ার সাথে যারা উড়ে যাচ্ছ
আমায় নাও
দুপুরের বিষন্ন এন্টেনায় যারা বসে আছ
আমায় নাও
আমি পায়ের পাতা খুঁজে পাই না
আমার কবন্ধ জন্ম জানলায় বসে কেটে গেল

যে ছেলেটা জং ধরা লোহার শিক ধরে আছে
সে আসলে উন্মাদ হওয়ার অপেক্ষা করছে
পাগলের গায়ে ভীষণ শক্তি
তাই আধলা গায়ে ঠোকা খেয়ে
নক্ষত্রপুঞ্জে ছড়িয়ে যায়

সে আমাকে বলেছিল বৃষ্টির গন্ধ আছে
পাগলে কীই না বলে

ফেসবুক অ্যাকাউন্ট দিয়ে মন্তব্য করুন


রাজর্ষি দে

জন্ম ১৯৮৬ সালে। বেড়ে ওঠা পুরনো কলকাতার গলিঘুজিতে, কিন্তু পড়াশুনো দক্ষিন কলকাতায়। কবিতা লেখা শুরু জুনিয়র স্কুল থেকেই। শিবপুর বেঙ্গল ইঞ্জিনিয়ারিং থেকে কারিগরি বিদ্যার পাঠ। চাকরি জীবনের শুরু থেকে লেখালিখিতে লম্বা বিরতি। ফিরে আসা পাঁচ বছর পরে। বর্তমানে নিয়মিত লিখছেন কৃত্তিবাস, ভাষানগর, মধ্যবর্তী, রক্তমাংস, কবিতা আশ্রম, আবহমান, অপদার্থের আদ্যাক্ষর এবং আরো অনেক পত্র পত্রিকায়। প্রথম বই "ইতিহাসে লেখা নেই" প্রকাশ পেয়েছে ২০১৮ কলকাতা বইমেলা। সাম্প্রতিক প্রকাশ পেয়েছে দ্বিতীয় বই "মাধবীলতা, আপনাকে"। কবিতাকে নেশা বা পেশা নয়, নিজের "কাজ" বলে মনে করেন কবি।

0 Comments

মন্তব্য করুন

Avatar placeholder

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।