যাপন কথা

শুভঙ্কর চ্যাটার্জী on

কিছু কথার নির্বাক আগুনে পুড়তে পুড়তে
আনমনের জানালা দিয়ে ভেতরটাতে
উঁকি দিয়ে দেখেছি-
মন পাগলটাকে ডুবতে দেখেছি, ভাসতে দেখেছি
হারিয়ে যেতে দেখেছি অতল তলে
ভীড়ের মাঝে ভীষণ নির্জনে –
চোরা গলির অন্ধকারে এক পা দু পা করে
খুব চেনা পথও ভুলে গিয়ে হাতড়াতে দেখেছি
জানি দায়ি কেউ নয়-
তবু কেন যেন মনে হয় এমনটা না হলেও হত।

জল ভরা সময় মেঘ থেকে শব্দ বৃষ্টি টুপটাপ
এক পশলা, দু পশলা, মুষলধারা অবিরাম
কথা চুপ থাকে মন বাচাল-
বেনামা ভয়েরা গলা চেপে ধরে, চোখ রাঙায়
অস্তিত্ব হাঁসফাঁস করে এক টুকরো মিঠে বাতাস
শক্ত হাওয়ায় শ্বাস আসে না-
দুমড়ানো মুচড়ানো হৃদয়টাকে অন্ধকার কোনায়
ঠেসে ধরে কাঁদতে দেখেছি চোখ মুছতে দেখেছি
খোঁজ কেউ নেয় না-
নিলে বলতাম এই তো সুস্থ আছি শুধু বেঁচে নেই।



শুভঙ্কর চ্যাটার্জী

জন্মঃ ১৯৮২ সালের ২৭শে জুলাই। পড়াশোনাঃ বালুরঘাট হাই স্কুল। লেখালেখির সঙ্গে যুক্ত স্নাতক স্তর থেকে। বর্তমান পেশাঃ প্রাথমিক শিক্ষক। সঙ্গে লেখালেখি। এছাড়া ছবি আঁকার সঙ্গে যুক্ত।ছবি আঁকার প্রথাগত কোন শিক্ষা নেই। অনেকটাই দেখে শেখা। সে অর্থে স্বশিক্ষিত। ছবি আঁকার সঙ্গে যুক্ত ছেলেবেলা থেকেই। অয়েল এবং অ্যাক্রেলিকে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন। মুলত ছোটগল্প ও অণুগল্প লিখতে ভালোবাসেন। এছাড়া কিছু বড় গল্প এবং উপন্যাস ও লিখেছেন। মানুষের কথা, সমাজের কথা, সাংসারিক টানাপড়েন এইসবই লেখার উপজিব্য বিষয় । আনন্দমেলা, পত্রপাঠ প্রভৃতি পত্রিকায় লেখা ছাপা হয়েছে। স্থানীয় পত্রিকা আত্রেয়ীর পাড়াতে লেখা ছাপা হয়। কিছু উল্লেখযোগ্য গল্প - ফ্রেন্ডশিপ, ফেরী, বিষ ইত্যাদি।

0 Comments

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।