প্রথমত অন্ধকারের পেটেই আকারহীন সময়ের দ্বিতীয় জন্ম ।
না না ! জাতিস্মরের কথা বলছি না ।
পৃথিবীর গভীরতম অন্ধকারে এক অন্ধের হেঁটে যাওয়ার কাহিনী…

অন্ধের কোনো জাত থাকে না,
অথচ সেই জাতির রক্তের ভেতর সময় একটু একটু করে আকারে পরিণত হচ্ছে
তৃতীয় জন্ম আমার , সম্মুখে ঘরের ভেতর।

তুমি বোধহয় আজ হলুদ দিতে ভুলে গেছো
কোথাও কোনো রং নেই । রক্তাল্পতা শরীরে সময়ের কোনো আকার নেই
অবসর উনুনে তুমি এখন নিখোঁজ, শিল নোড়ার শব্দ শোনা যাচ্ছে …

দুটো কালমেঘ দুটো নিম পাতা আর বাটি ভর্তি পড়ে আছে একটা স্বাদহীন স্বপ্ন।

Categories: কবিতা

প্রবীর চন্দ্র দাস

লেখকের কিছু কথাঃ - " লেখা আমার কাছে অলিখিত অরণ্যের সূর্যালোক। যা কিছু বলতে চাই, যা বলতে পারিনা সমস্ত কিছুর জবাবদিহি লেখার শিরা-উপশিরার ভেতর বয়ে চলেছে সাবলীল। লেখার ভেতর নিজেকে খুব স্বাধীনভাবে খুঁজে পাই, আর অনুভব করি সম্পর্কের যাবতীয় মিশরীয় বিশ্বাস। ছেলেবেলা থেকেই বালুরঘাট আমার স্বপ্নের শহর। আত্রেয়ী আমার যৌবনের প্রথম নদী।"

0 Comments

মন্তব্য করুন

Avatar placeholder

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।