ঠোঁটে লেগে বিহানবেলা

অমৃতা রায় চৌধুরী on

অভিমানের অধিকার না পাওয়া পর্যন্ত তার নাম কী হয় জানো?
—— ‘আদিখ্যেতা’ !
অভিমান যাপনের স্পর্ধা কে দিলো তোমায়? কতো খরচ হয় তা জানো?

ফাঁকা রাস্তাতেও হোঁচট খেতে পারো বারবার,
চোখের সামনে দিয়ে বাস চলে যাবে,
তুমি দাঁড়িয়ে থাকবে পাশে পড়ে থাকা ধুলোয় জড়ানো
একটা পাথরের দিকে তাকিয়ে..
সদ্য পড়া নেইলপলিশ দাঁত দিয়ে কামড়ে তুলবে,
প্রিয় গান শুনলে মনে হবে কে যেন বাসন মাজার শব্দ করছে খুব,
ভোঁ ভোঁ করবে কানের ভেতর,
রুমাল মাখা সুগন্ধিতে দম বন্ধ হয়ে আসবে,
কাজল পড়তে গিয়ে ধেবড়ে যাবে কতোবার!
আতশকাচ দিয়ে দেখতে হবে চারপাশ—- এতোটাই দূরের দেখাবে সব।

মনের ভেতর আস্ত একটা বিষাক্ত সাপ ঘুরে বেড়াবে,
সুযোগ খুঁজবে ছোবল দেওয়ার,
অভিমান জড়িয়ে যেই তোমার চোখ দুটো বন্ধ হয়ে আসবে,
অমনি ও বিষ ঢেলে দেবে তোমার প্রেমিকের জন্য তৈরী করা এক কাপ চায়ে—–
সেই চা খেয়ে গলা বুক জ্বলতে জ্বলতে ঢলে পড়বে তোমার কোলে—–
তোমার প্রেমিক।
পোস্ট মর্টেম রিপোর্টে বলা থাকবে—- ‘ Death from the stain of lipstick on a cup of tea ‘..
‘হ্যাঁ’—-
তোমার ঠোঁট থেকে লেগে থাকা লিপস্টিকের দাগ,
যা তোমার প্রেমিককে ছুঁতেই সে লুটিয়ে পড়ল মৃত্যুর কোলে—–
তোমার কোলে।

পারবে এতো কিছুর দাম দিতে?
ভেবে দেখো—-
না পারলে
বিনা অনুমতিতে অভিমান করার অভ্যাসের বিনিময়ে চেয়ে নাও যা তোমার সব চেয়ে প্রিয়—
ডীপ ফ্রীজে রাখা তোমার বিষাদ!



অমৃতা রায় চৌধুরী

ইংরাজীতে স্নাতকোত্তর। কবিতা লিখতে ভালবাসেন।

3 Comments

Ankur Kundu · জুলাই 8, 2019 at 6:14 অপরাহ্ন

আপনার লেখার মধ্যে অদ্ভূত মিশ্রণ আছে মন খারাপ ও হাসি মুখের।

Ipsita Jana · জুলাই 8, 2019 at 10:04 অপরাহ্ন

অনবদ্য সৃষ্টি..

Supriti Chakraborty · জুলাই 9, 2019 at 6:19 পূর্বাহ্ন

কবিতার নামটাই ভারী সুন্দর, লেখাটা সত্যি ফ্রিজে রাখার মতো, শুভেচ্ছা রইল ?

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।