অভিমান

দেবাশিস মহন্ত on

বরং শহুরে হয়ে যাই…

অভিমানী গ্রাম এই দেখ আমি হাত নাড়াচ্ছি
ছোটবেলার পেয়ারাগাছ তোমার কাছে
খবরের কাগজের হকারের মতো
কোনওদিন জানতে চাইনি জন্মকথা
যেমন জানতে চাইনি মায়ের কাছে।

বরং শহর ছুঁয়ে আসি…

মাটির ঘ্রাণ কাদা মাখামাখি
পঙখীরাজের গল্প আর সুমিদি’র বাড়ি
কাঁঠালতলায় ধুলোবালি খেলাঘর
অনেক রাগের পরে মায়ের সাথে খুনসুটি

রোদ, পিচ — এই আমি
এখনও সবুজ হয়ে আছি।

Categories: কবিতা

দেবাশিস মহন্ত

জন্ম- ১ জানুয়ারি, ১৯৭৯। পশ্চিমবঙ্গ-এর দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাটের কাছে একটি প্রান্তিক গ্রাম তিওড়-এ। প্রথম লেখা প্রকাশিত হয় স্কুল ম্যাগাজিনে। সিরিয়াসলি লেখালেখির শুরু শূন্য দশকের শুরুতে। বিভিন্ন লিটিল ম্যাগাজিনে। ২০০২ সালে প্রকাশিত হয় প্রথম কবিতার বই – ‘আলো নিভে গেলে’। তিনি বলেন – “ কবিতাই একমাত্র সাধনা। কবিতাই শিহরিত করে জানিয়ে দেয় এই চরাচরকে, চারিদিকে ঘটে যাওয়া ঘটনাকে। এখনও লিখে চলেছি নিরন্তর। যা লিখতে চাই তা আর পারলাম কই। শুধু অতৃপ্তি …অতৃপ্তি … অতৃপ্তি …। শুধু অপেক্ষা সেই নিরাকারের। তাকে আকার দেব বলে পারে বসে আছি একা। বিশ্বাস করি - কবিতাতেই একমাত্র মুক্তি ...।“ বর্তমানে স্বাস্থ্যদপ্তরে কর্মরত।

0 Comments

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।