অনুভূতি

অমিতাভ দাস on

চারিদিকে সপ্তমীর আলো,দূর্গা মন্ডপে লোকজন আসতে শুরু করেছে।রাজুর এবারে পাঁচ পাঁচটা জামা হয়েছে।ষষ্ঠীতে একটা পরা হয়ে গেছে সপ্তমীতে ভেবেছিল লাল জামা আর নীল জিন্সটা পড়বে এতক্ষনে পড়েও ফেলত হয়ত কিন্তু সকালে যা ঘটল….কাকা ফ্ল্যাট কিনে যাওয়ার সময় রাজুদেরকে তাঁর ঘরটা ব্যবহার করতে দিয়ে গেছিল সেই ঘরে রাজুদের আলমারিটা রাখা থাকে তাতে থাকে সমস্ত জামা কাপড় আর টাকা পয়সা আজ হঠাৎ সকালে বাবার সাথে কাকার তুমুল বচসা আর তারপরই কাকা তালা দিয়ে চলে যায় ঘরে,ভিতরে রয়ে যায় আলমারিটা যাতে রাখা আছে রাজুর পুজোর জামা আর সমস্ত টাকা পয়সা।ঠেলা লাগতেই চমক ভাঙে রাজুর পিছনে কাকার ছেলে সামু।ও রাজুকে ধরে টানতে টানতে বলে,চল দাদা বাবা ঘর খুলে দিয়েছে নতুন জামা পড়বি চল।রাজু কিছু বোঝার আগেই দেখে কাকিমা মার চোখ মোছাতে মোছাতে বলছে,সারাটা দিন তোমার দেওর মুখে কিচ্ছুটি দেয়নি জানো।কাকা তখন মুখ নীচু করে আর বাবা তার মাথায় হাত বোলাচ্ছে।সব্বার চোখে জল।


ফেসবুক অ্যাকাউন্ট দিয়ে মন্তব্য করুন


অমিতাভ দাস

অমিতাভ দাস বাকসাড়া রোড,বাকসাড়া,হাওড়া।

0 Comments

মন্তব্য করুন

Avatar placeholder

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।